লাভজনক স্টক মালের ব্যবসার আইডিয়া (stock business idea)

আজকে আমাদের এই আর্টিকেল এর ভিতরে কয়েকটা লাভজনক 

মালের ব্যবসা সম্পর্কে আলোচনা করব। 

Profitable Business Ideas in Bangladesh

 

 

তাহলে আসুন আমরা জেনে নেই আজকে কয়েকটা স্টক মালের ব্যবসার আইডিয়া সম্পর্কে 

 

{tocify} $title={Table of Contents}

 

. ধানের ব্যবসা শুরু করতে পারেন  

ধানচিনেনাএমনমানুষখুঁজেপাওয়াকিন্তুঅনেককঠিন।বিশেষ করেকিন্তুএশিয়াতে ধানেরপ্রচুরচাহিদারয়েছে। কারণধানথেকেকিন্তুআমরাচালপেয়েথাকি।আরচালথেকেকিন্তুআমরাপ্রতিদিন দুইথেকেতিনবেলাখাবারখেতেপারি। 

আরআপনারাকিনতেচাইলেধানেরস্টকব্যবসাকরতেপারেন  আরএইব্যবসাকিন্তুঅনেকেইকরে, বর্তমানে কিন্তুব্যবসার অনেকচাহিদারয়েছে  যদি বা এই ব্যবসার চাহিদাসবসময়থাকে।আপনারাচাইলেধানেরমৌসুম  ধানকিনেরেখেদিতেপারেন। 

আরতারপরআপনারাচাইলেকিন্তুকিছুদিন পরেসেগুলোবেশভালোপরিমাণে মুনাফালাভকরেসেগুলোবিক্রিকরেদিতেপারেন আর তাছাড়া আপনারাচাইলেকিন্তুধান গুলোকে  চাউল কল হতে ভাঙ্গিয়ে নিয়ে এসে আপনারা চাল  বিক্রি করতে পারেন। 

ধানের ব্যবসায়লাভ অল্প পরিমাণে হলেও কিন্তু এক্ষেত্রে আপনার  এই ব্যবসায় লস কম হবে , অর্থাৎ  লস বা  ক্ষতির সম্মুখীনহতে হবে না আপনাকে। আর তাই আপনারা চাইলে কিন্তু ধানের ব্যবসা  অনায়াসে শুরু করে দিতে পারেন। 

. গমের ব্যবসা করতে পারেন 

গম কিন্তু সকলের একটি পরিচিত খাদ্য, সকালবেলা আমরা যখন নাস্তা করতে চাই তখনই কিন্তু বেশিরভাগ সময় আমাদের নাস্তা করার জন্য আমাদের গমের আটার দরকার হয়ে থাকে।আপনারাচাইলে কিন্তু গমের ব্যবসা শুরু করে দিতে পারেন

গম কিন্তু  বাংলাদেশের ভেতরে সকল জায়গাতে ভালো ফলন হয়। আপনারা কিন্তু  গমের মৌসুমে কম এগুলো পেয়ে যাবেন আপনি যদি মৌসুমী সময়  অর্থাৎ ,যখন গমের সিজন তখন আপনারা কিনে রাখতে পারেন আর যে সময়ে  গমের সিজন না  সেই সময় কিন্তু আপনারা বেশি দামে বিক্রি করতে পারবেন। 

আর এই ব্যবসায়ী কিন্তু একেবারে ঝুঁকি নেই এটা  বলা যায়। আর এই যদি আপনারা  এক  বৎসর আপনারা স্টক করে রাখেন তাতে কোন সমস্যা নেই।কোনরকম চিন্তা ছাড়াই কিন্তু আপনারা গম এক বছর পর্যন্ত রেখে দিতে পারবেন  

. ডালের স্টক ব্যবসা করতে পারেন 

খাবারের সময় খাবারের তালিকাতে যদি  ডাল না থাকে তাহলে কেমন জানি খাবারটা অসম্পূর্ণ থেকে যায় , আর তাছাড়া খেতেও ভালো  লাগেনা , ডাল  থাকলে  তৃপ্তি করে খাওয়া যায়। ডাল আমাদের  জন্য কিন্তু অন্য রকমের একটা  নিত্য প্রয়োজনীয় খাবার ,আর যেটা কিন্তু আমরা প্রায় প্রত্যেক  দিনই খেয়ে থাকি মুগ, মসুর, ছোলা,মটর, অড়হর, মাষকলাই, খেসারি এরকমের অনেক ডাল কিন্তু আমরা খেয়ে থাকি  

এক  এক  মৌসুমে দেখা যায় যে এক এক ধরনের  ডালের চাষ করা হয়ে থাকে আপনি কিন্তু চাইলে মৌসুমী  এর সময় কম দামে কিনে রেখে তারপরে,অফ সিজনে বেশি দামের সেগুলোকে বিক্রি করে দিতে পারেন আর এতে কিন্তু আপনাদের বেশ ভালো পরিমাণে লাভ হবে 

. বাদামের স্টক ব্যবসা

বর্তমান সময়ে আপনারা যদি আপনাদের নিজেদের  পায়ে  দাঁড়াতে  চান তাহলে অবশ্যই আপনাদেরকে উদ্যোগী  হওয়া লাগবে। আর উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য কিন্তু আপনাদেরকে ঠিক করতে হবে যে, কী দিয়ে  আপনারা শুরুটা করবেন   আর এর জন্য দরকার স্বল্প মূলধন  দিয়ে করা যায় এমন ব্যবসা।  

বাদামের চাহিদা  কিন্তু আমাদের দেশে সারা বছর ধরে থাকে, এবং ছোট বড় সকলের কাছে একটি প্রিয় খাবার হলো বাদাম। বাদামের ব্যবসা  দুইভাবে  আপনারা করতে পারবেন নিজেরাই আপনারা  বাদাম ভেজে  তারপরে সে গুলোকে বিক্রি করতে পারবেন   কিংবা আপনারা চাইলে পাইকারি  দামে কিনে সে গুলোকে মজুদ করে রাখতে পারেন  

 

 

Read More – অন পেজ এসইও কি,অনপেজ এসইও কিভাবে করবেন?

 

আর আপনারা সকলে একসাথে দুটি চালিয়ে নিতে পারেন ভাজা বাদাম বিক্রি  কিন্তু  আপনারা বেশ ভালো পরিমাণে লাভবান হবে   আপনাদের প্রয়োজন হবে : বাদাম ভাজা করার জন্য  বড়   মানের একটি  কড়াই, বড় গামলা, ছিদ্রযুক্ত চালনি, বড় হাতা  অথবা  নাখড়ি  এই সমস্ত জিনিস গুলো   

ভাজা বাদামেরক্ষেত্রে অবশ্যইআপনাদেরকে একটিসতর্ক থাকালাগবে   ভাজতে যাওয়ারসময় যদিএকটু বেশিপরিমাণে পুড়ে  যায়তাহলেদেখা যাবেযে বাদামেরস্বাদ তেতো  হয়ে যাবেঅনেক   

আর অপরদিকেআপনাদেরকে পাইকারিকাঁচা বাদামএর  ক্ষেত্রেখেয়াল  রাখালাগবে যেস্থানে বাদামরাখা হবেসে  জায়গাটাযাতে করে  স্যাঁতসেঁতে  নাহয়ে থাকে  তানা হলেদেখা যাবেযে আপনাদের  বাদামে ছত্রাক  ধরা শুরুকরবে আর এতেকরে দেখাযাবে যেবাদামের পুষ্টিগুণনষ্ট  হতেথাকবে   তাই কিছুদিনপরপর  আপনাদেরকে  গুদাম করেরাখা বাদাম  রোদে দিয়ে  শুকিয়ে নেওয়ালাগতে পারে 

খরচ এবংলাভ: ২০হতে  ৩০হাজার টাকাদিয়ে কিন্তুআপনারা শুরুকরতে পারবেনএই বাদামেরব্যবসা। পরবর্তী  সময় দেখাযাবে যে  মূলধন বাড়িয়েব্যবসার পরিসর  চাইলে আপনারাবাড়াতে পারবেন 

আর  ব্যবসা করেকিন্তু আপনারাপ্রত্যেক মাসে  ২৫ থেকে৩০ হাজারটাকা পর্যন্ত  খুব সহজেলাভ করতেপারবেন প্রশিক্ষণ: বাদামব্যবসায় তেমনকোন  ভালোমানের   প্রশিক্ষণেরদরকার হবেনা আপনাদের  

তবে এইব্যবসা যেঅনেকদিন ধরেকরে যারঅভিজ্ঞতা রয়েছেব্যবসা সম্পর্কেতার থেকেআপনারা কিছুআইডিয়া নিতেপারেন এইব্যবসা সম্পর্কেতাহলে আপনার  ব্যবসাসম্পর্কে কিছুটাধারণা হবে  

পার্কের বেঞ্চে বসে বাদাম খেতে খেতে বন্ধুবান্ধবদের সাথে আড্ডা দেওয়ার মজাই কিন্তু অন্য রকমের। সাধারণ ভাবে কিন্তু আষাঢ়, শ্রাবণ  এই 2 মাসে বাদাম কেনার উপযুক্ত সময়ে বলে মনে করা হয় 

আপনারা যদি এই সময় বাদাম কিনে রেখে দেনআর তার পরে সেগুলো যদি আপনারা শীতের সময় বিক্রি করেন তাহলে কিন্তু আপনার দ্বিগুণ  লাভ করতে পারবেন উত্তরবঙ্গে কিন্তু অনেক বাদাম চাষ করা হয়ে থাকে 

সেখান থেকে কিন্তু আপনারা বাদাম কিনে নিয়ে সারা বাংলাদেশে বাজারজাত করতে পারবেন কিন্তু এই বাদাম মজুদ করার সময় আপনাদের একটা বিষয় মাথায় রাখতে হবে, যাতে করে বাদাম যেন পানিতে না ভিজে যায়। আর  ইঁদুর যেন কোনোভাবেই  বাদাম নষ্ট করতে না পারে। 

 

. কাপড়ের স্টক ব্যবসা 

আপনারা  চাইলে কিন্তু অফ সিজনে এই ব্যবসাটা   অবশ্যই শুরু করতে পারেন। যেমন মনে করেন যে,গরম এর সময়তে  শীত এর  কাপড় এর দাম কিন্তু খুব ১টা  বেশি পরিমানে থাকে না আর যদি বা থাকে তা হলে কিন্তু  সেটার নাম নামেমাত্র হয়ে থাকবে। 

আপনার ইচ্ছা করলে কিন্তু  গ্রীষ্মকালে প্রচুর পরিমাণ শীত কাপড়  রাখতে পারেন যেমন মনে করেন যে , হুডি, ডেনিম জ্যাকেট,ব্লেজার,শয়েটার  এই  সমস্ত কাপড়গুলো কিনে স্টক করে রাখতে পারেন। 

 

শীতের সময় আপনারা  ১টু বেশী দানে এইগুলোকে বিক্রি করতে পারবেনযে কাপড়ের দাম শীতের সময় ১০০০ টাকা থাকে কিন্তু দেখা যায় যে,গরমের সময়  সেটার মূল্য অর্ধেক হয়ে যায় আর এটা শুধু কিন্তু কাপড়ের ক্ষেত্রেই নয়,স্নিকার্স,জুতা  সহ  সকল রকমের পণ্য এর ক্ষেত্রে এটি কার্যকরী একটা  উপায়।

. সুপারির স্টক ব্যবসা  

আমরা সংস্কৃতি প্রিয় জাতি হিসেবে কিন্তুপান এবং সুপারির খাওয়ার অভ্যাস  অনেক আগে থেকেই রয়ে গিয়েছে মেহমান  বাসায় বেড়াতে আসতে  কিন্তু দেখা যায় যে  আপ্যায়ন  কিংবা  শ্বশুর বাড়িতে মিষ্টির সঙ্গে   পানসুপারি সব জায়গায় বেশ ভালো প্রচলন আছে  

বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা যায় যে সারা বছরই প্রায়সুপারি পাওয়া গেলে বিভিন্ন  মানুষেরা বিভিন্ন রকমের সুপারি খেয়ে থাকে 

কেউ আছেন যারা  শুকনাসুপারি  খেয়েথাকেনআবারঅনেক মানুষ রয়েছেন যারা  কাঁচা সুপারি  আবার অনেকে রয়েছে  যাদেরভেতরে  কেউ

আরো পডুনঃ ইনস্টাগ্রামে ফলোয়ার কিভাবে বাড়াবেন (ফলোয়ার বাড়ানোর টিপস)

মজানো সুপারি   খেতে অনেক জন্য পছন্দ 

আপনারা চাইলে গাছ থেকে কিন্তু  সুপারি পেড়ে  এনেতারপর সেগুলো কে শুকিয়ে তা বিক্রি  করতে পারেন  কিংবা আপনারা চাইলে পানিতে পচিয়ে  সেটাকে ভালো দামে বিক্রি করতে পারবেন।  আরএকটা কথা , এই সুপারি  একটু গন্ধ  যদি হয় তারপরও কিন্তু খেতে অনেক মজা এবং দাম তুলনামূলকভাবে সব সময় দেখা যায় বাজারে একটু বেশি থাকে

তা আপনারা চাইলে কিন্তু এই ব্যবসাটা শুরু করতে পারে না ব্যবসা করে কিন্তু আপনারা বেশ ভালো পরিমাণ মুনাফা অর্জন করতে পারবেন বলে আশা করা যায়বর্তমান সময়ে এখন অনেকেই এই ব্যবসা করে সফল হচ্ছেন তাই আপনারা চাইলেই ব্যবসা শুরু করতে পারেন আর এই ব্যবসা করতে আপনাদের বেশি মূলধনের দরকার হবে না আপনারা অল্প  মূলধন  দিয়েই এই ব্যবসা শুরু করতে পারবেন  

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *