পারিবারিকভাবে বিয়ে করলে যে কাজ করবেন না

বর্তমানে লাভ ম্যারেজের সংখ্যাই বেশি। তবে অনেকেই পারিবারের পছন্দ অনুযায়ীও বিয়ে করেন। যদিও এক্ষেত্রে বর-কনের একে অপরকে চেনা-জানার সম্ভাবনা কম থাকে।
যদিও পারিবারিকভাবে বিয়ে করার অনেক সুবিধা আছে, তবে এক্ষেত্রে বিয়ের আগে অনেকেই নানা কারণে দুশ্চিন্তায় থাকেন।
বিশেষ করে পাত্র বা পাত্রী কেমন হবেন, তার সঙ্গে মনের মিল হবে কি না, বা তার চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য কেমন- ইত্যাদি প্রশ্ন মাথায় খুরপাক খায় সবারই।

তাই আপনি যদি অ্যারেঞ্জড ম্যারেজ করেন তাহলে কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে, বিশেষ করে কয়েকটি কাজ আছে যা ভুলেও করবেন না-বন্ধুদের লাভ ম্যারেজ করতে দেখে আফসোস করবেন না। এই কথাগুলো মাথা থেকে সরিয়ে ফেলুন। এর বদলে ইতিবাচক চিন্তা করুন, তাহলে মনে প্রশান্তি আসবে।

অকারণ চিন্তা করবেন না

বিয়ের পরে কি হবে, নতুন সংসার কেমন হবে, অচেনা মানুষটার অচেনা রূপ সামনে আসবে কি না, আপনি মানিয়ে নিতে পারবেন কি না এরকম হাজারো দুশ্চিন্তা বাদ দিন।
এসব বিষয়ে নিশ্চয়ই আপনার পরিবার খোঁজ নিয়েই বিয়ে ঠিক করেছেন, তাই নিশ্চিন্ত থাকুন। আর যদি ভাবেন হবু সঙ্গীর অজানা দিক সম্পর্কে জানেন না, তাহলে মনে রাখবেন লাভ ম্যারেজেও কিন্তু সবাই সব কথা জানতে পারেন না।
মনমরা হয়ে থাকবেন না

প্রথম আলাপের পর ফোন নম্বর বিনিময় করে কথা বলা শুরু করুন হবু সঙ্গীর সঙ্গে। হয়তো তার সঙ্গে কথা বলার মাধ্যমে আপনার দ্বিধা কেটে যাবে।
এছাড়া সোশ্যাল মিডিয়ায় যুক্ত হন, একে অপরের সঙ্গে পছন্দ-অপছন্দ শেয়ার করুন ও উপহার দিন। দেখবেন লাভ ম্যারেজের মতোই অনুভূতি মিলবে।

ব্যক্তিগত কথা জানবেন না

হবু সঙ্গীকে আবার নিজের খুব ব্যক্তিগত কথা জানাবেন না। যে মানুষটিকে আপনি সদ্য চিনেছেন তার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে প্রথমেই প্রশ্ন করবেন না।
ব্যক্তিগত প্রশ্ন বলতে, সে কত টাকা বেতন পান বা আগে প্রেম ছিল কি না এসব। যদি নিজে থেকে সে বলে তখন কিছু জানতে পারেন প্রশ্ন করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *