ধমনীতে রক্ত জমাট বাধার লক্ষণ

কখনো আঘাত পেলে রক্ত জমাট বাধা স্বাভাবিক। রক্তপাত কমাতে বিষয়টি জরুরি হলেও জমাট বাধা রক্ত ফের রক্তে দ্রবীভূত না হলে যাবতীয় সমস্যা দেখা দিতে পারে। এর ফলাফলও হয় গুরুতর। করোনা মহামারির পর বেশ কটি গবেষণাতে এমন কিছু তথ্যই পাওয়া গেছে। অর্থাৎ ধমনীতে রক্ত জমাট বাধা বিপজ্জনক। তাই এর লক্ষণগুলো আগে থেকেই শনাক্ত করতে হবে। অনেকে হয়তো প্রথমে বুঝতেই পারেন না। তবে এমন লক্ষণ দেখলে দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন:

ত্বকের রঙ বদল
হাত বা পায়ের ত্বকে কালশিটে বা লালচে দাগ দেখলে সাবধান হতেই হবে। রক্তনালির ক্ষতি হলে ত্বক বিবর্ণ হতে পারে।

অস্থিসন্ধির ব্যথা কমাতেঅস্থিসন্ধির ব্যথা কমাতে
ফোলা ভাব

ত্বকে হালকা গুটি মতো যদি জমাট বাঁধতে শুরু করে তবেও সাবধান হতে হবে। অ্যালার্জি কিনা তাও নিশ্চিত হয়ে নিন।
যন্ত্রণা

আচমকা বুকে তীব্র ব্যথা? অথবা বাম হাতে কেমন ব্যথা। এই যন্ত্রণা অনুভূত হলে দ্রুত ডাক্তারের কাছে চলে যান।
নাক-কান ফোড়ানোর পর নাক-কান ফোড়ানোর পর

শ্বাসকষ্ট
এটি সবচেয়ে গুরুতর উপসর্গ। ফুসফুসে বা হার্টে রক্ত জমাট বাধার লক্ষণ হিসেবে এদের শনাক্ত করা হয়। শ্বাসকষ্ট, বুক ধড়ফর এসব সমস্যায় দ্রুত চিকিৎসকের কাছে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *