অন পেজ এসইও কি,অনপেজ এসইও কিভাবে করবেন? (বাংলা টিউটোরিয়াল)

আজকের এই আর্টিকেলে অনপেজ এসইও সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে

পারবেন

অন পেজ এসইও কি,অনপেজ এসইও কিভাবে করবেন? (বাংলা টিউটোরিয়াল)

 


অন পেজ এসইও কি এবং আপনাদের ওয়েবসাইট এর ভিতরে অনপেজ এসইও  কিভাবে করবেন এই বিষয়গুলো সম্পর্কে আজকের এই আর্টিকেলের বিস্তারিত জানতে পারবেন। 

 

{tocify} $title={Table of Contents}

 

আপনিযদিঅনপেজএসইওজানারজন্যআগ্রহীহয়েথাকেনবা  অনপেজএসইওকিভাবেকরতেহয়  বিষয়ে জানতে অনেকখোঁজাখুজি করারপরেওযদিনাপেয়েথাকেনযেকিভাবে  অনপেজএসইওকরতেহয়, তাহলেআজকেরএইআর্টিকেল আপনিঅনপেজএসইওসম্পর্কে বিস্তারিত সকলতথ্য  জানতেপারবেন। 



অন পেজ এসইও কি?

 

অনপেজএসইও  হচ্ছে  একটিওয়েবসাইটের ভিতরেযেকাজগুলো করাহয়তাকেমূলত  অনপেজএসইওবলাহয়েথাকে।যেমন,মেটাট্যাগডিসক্রিপশন ,পার্মালিনক,সঠিকভাবে শিরোনাম দেওয়া,সঠিকভাবে  কিওয়ার্ড ব্যবহার করাকিওয়ার্ড ঘনত্বঠিকরাখা, আলট্রাটেক্সটব্যবহার করা, ইন্টারলিংকিংকরা, এক্সটার লিঙ্ককরা, আউটবাউন্ড লিঙ্ককরা, ব্যাকলিঙ্ককরা, সাইট স্পিড,  এইসমস্তযেকাজগুলো ওয়েবসাইট এরভিতরেকরতেহয়সেগুলোমূলতঅনপেজএসইওবলাহয়েথাকে। 

নিচে একটা লিস্ট দেওয়া হল – 

 

  • Keyword Analysis
  • Competitor Analysis (Website)
  • Title Optimization
  • Meta Description Optimization
  • Heading (H1, H2, H3, H4, H5, H6)
  • Blod
  • Hyperlink
  • Alt Text
  • Permalink/ Slug/ URL Optimization
  • Image Optimization
  • Css & JavaScript Optimization
  • Speed Optimization
  • Internal Linking
  • External Linking
  • Sitemap
  • Robots.txt
  • Search Console Setup
  • Google Analytics

এসইওহলোটেকনিকআপনিযদিসঠিকভাবে টেকনিকঅবলম্বন করেআপনারওয়েবসাইটে সেটাকেব্যবহার করতেপারেনতাহলেঅবশ্যইআপনারওয়েবসাইটটি গুগলেরেংককরবে আর  কিছু টেকনিক এবংপদ্ধতিঅবলম্বন করিকিন্তুআপনিআপনারওয়েবসাইটে অথবাআপনারক্লায়েন্টের ওয়েবসাইট গুগলেরপ্রথমপেজেআনতেপারবেনআরএরমাধ্যমে কিন্তুসেইওয়েবসাইটে প্রচুরপরিমাণে ভিজিটরআনতেপারবেনখুবসহজে।

  

. ওয়েবসাইটে কিভাবে One Page SEO করবেন?

 

বর্তমান সময়থেকেচারথেকেপাঁচবছরআগে  মানুষেরা  অনপেজ এসইওবলতেশুধুমাত্র তারা  ভাবতেযেআর্টিকেল এরভেতরেপ্রচুরপরিমাণে কিওয়ার্ড ব্যবহার করা 

 

যদিওবাআগেপ্রচুরপরিমাণে কিবোর্ড ব্যবহার করাযেতআর্টিকেলের ভিতরেকিন্তুবর্তমানে এইকাজটাকরলেকিন্তুআপনারওয়েবসাইট গুগলথেকেপেনাল্টি খেতেপারেবাআপনারওয়েবসাইট গুগোলথেকেব্লকহয়েযেতেপারেআরযারকারণেদেখাযাবেযেআপনাদের গুগোল সার্চ করলেও পাবেননাডাইরেক্ট লিংকযদিআপনারাগুগলেসাবমিটকরেনতারপরদেখবেনযেআপনাদের ওয়েবসাইট গুগলেকোনভাবেআসতেছেনা। 

 

দেখাযাবেযে, কিছুদিনের জন্যআপনাদের ওয়েবসাইট গুগলেরপ্রথমপেজেআসবেকিন্তুসেটাকিছুদিনের জন্যকিছুদিন পরেদেখবেনআপনাদের রয়েছে  পেনাল্টি খেয়েযাবেতাইঅবশ্যইআপনাদেরকে এইবিষয়টা লক্ষ্যরাখতেহবেবর্তমানে কিন্তু  কিওয়ার্ড বেশিপরিমাণে ব্যবহার করতেপারবেননা, 1000  word  আপনারা  5 পার্সেন্ট বা সাত পার্সেন্ট এইরকমহারেআপনারা  কিওয়ার্ড ব্যবহার করতেপারবেনাআরএটাকেকিওয়ার্ড ডেনসিটি বলাহয়েথাকে। 

Read More – লাভজনক স্টক মালের ব্যবসার আইডিয়া 

Read More – অন পেজ এসইও কি,অনপেজ এসইও কিভাবে করবেন?

 

২০২১ সালে এসে কিন্তু আপনারা আপনাদের ওয়েবসাইটের আর্টিকেলে  বেশি পরিমাণে  কীওয়ার্ড ব্যবহার  করাটাকে   কোনভাবেই এসইও বলা যাবে না।এটাকে বলা হয়ে থাকে মূলত  over keyword optimization  অথবা বলা যায় keyword stuffing.


. এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখতে হবে 

 

আপনি যদি আপনার লেখা আর্টিকেলটিগুগলের প্রথম পেজে  রেংক করাতে চান সেক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাদেরকে  এসইও  ফ্রেন্ডলিআর্টিকেল লিখতে হবে, আর আপনাদেরকেইউনিক আর্টিকেললিখতে হবে আপনারা যদি কোন কপি পেস্ট আর্টিকেললিখেন তাহলে কিন্তু কখনোই  গুগলের  রেঙ্ক করতে পারবেন না  

 

যত টেকনিক বা পদ্ধতি অবলম্বন করেন না কেন আপনি যদি ইউনিক আর্টিকেল লিখেন তাহলে কিন্তু কোনদিনও আপনার আর্টিকেলটি গুগলের রেঙ্ক  করতে পারবেন না  

 

তাই এক্ষেত্রেঅবশ্যই আপনারা চেষ্টা করবেন ইউনিক আর্টিকেল লিখতে অন্য কারো লেখা সাথে মিলবে না এমন আর্টিকেল লিখতে নিজের লেখার চেষ্টা করবেন অথবা যদি নিজের লিখতে না পারেন তাহলে অন্য কোন রাইটার হায়ার করে আপনারা তাদের কাছ থেকে কিছু পরিমাণ টাকা তাদেরকে দিয়ে তাদের কাছ থেকে আপনারা  লেখা লিখিয়ে  নিতে পারেন।

 

আর আপনি যদি নিজে লিখতে পারেন তাহলে তো কোনো সমস্যা নেই  আপনাকে তাহলে আর কোন রাইটারের কাছে যেতে হবে না নিজে লিখতে পারবেন কিন্তু এক্ষেত্রে অবশ্যই মনে রাখবেন যেন অন্য কারো সাথে মিলে না যায় আর আর্টিকেলএর ভেতরে কিওয়ার্ড নির্দিষ্ট পরিমাণে ব্যবহার করবেন এমন ভাবে ব্যবহার করবেন যাতে লেখার সাথে কিওয়ার্ড এসে যায়। 

 

আপনারা যে বিষয়ে সম্পর্কে আর্টিকেললিখবেন সেই বিষয় সম্পর্কে কিছু কিওয়ার্ড ব্যবহার করার অবশ্যই চেষ্টা করবেন যেমন মনে করেন , এসইও বাংলা টিউটোরিয়াল”, “এসইও কাকে বলে”, “এসইও কিভাবে করতে হয়”, “অন পেজ এসইও কাকে বলে”, “এসইও টিপস”, “সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন”, “বাংলা এসইও কোর্স”, “search engine optimization” এই সমস্ত কিওয়ার্ডগুলো আপনারা আলাদা আলাদা ভাবে ব্যবহার করতে পারেন চাইলে  


. ওয়েবসাইটে লোডিং স্পীড বাড়াবেন  

আমাদের ভেতরে দেখা যায় যে 85% blogger আছেন যারা  তাদের ওয়েবসাইট এর স্পিড এর দিকে বেশি খেয়াল করেন না , অনেক সময় দেখা যায় যে এমন একটা ওয়েবসাইট  এর সাথে ব্যাংক লিঙ্ক করা হয়েছে যে ওয়েবসাইট ওপেন হতে অনেক সময় নিয়ে নিচ্ছে অনেক সময় দেখা যায় যে ওয়েবসাইট স্লো হওয়ার কারণে অনেক ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইটথেকে চলে যাবে কারন একটা ওয়েবসাইটে বেশিক্ষণ থাকতে চায়না ভিজিটর   

 

কারণ অনলাইনে তো আর একটা ওয়েবসাইট নেই আপনার গুগলের সার্চ করলে লক্ষ লক্ষ  ওয়েবসাইটসে পেয়ে যাবে সেখানে আপনার ওয়েবসাইটে কেন সে বেসি সময় থাকবে তে এসে কেন আপনার ওয়েবসাইটেবেশি সময় ওয়েট করাবে ,   অর্থাৎ আপনাদের ওয়েবসাইট এর  স্পিড  যদি হয়ে থাকে তাহলে কিন্তু অবশ্যই আপনাদেরকে আপনাদের ওয়েবসাইট এর স্পিড বাড়াতে হবে।

 

আর যদি না পারেন তাহলে কিন্তু আপনারা প্রচুর পরিমাণে  ভিজিটর হারাবেনতাই আপনারা আপনাদের ওয়েবসাইট এর স্পিড কত পরিমাণে পারেন বাড়াবেন।

 

জিপিজি  আকারে ফটো আপনারা আপনাদের ওয়েবসাইটে আপলোড করবেন পিএনজি আকারে আপনাদের ওয়েবসাইটে কখনোই ফটো আপলোড করবে না তাহলে দেখা যাবে আপনাদের ওয়েবসাইটে ভারী হয়ে যাবে। 

 

আর আপনারা যদি আপনাদের ওয়েবসাইটেভিডিও দিতে চান তাহলে সেক্ষেত্রেঅবশ্যই আপনারা ভিডিওটি ইউটিউবে আপলোড করে তারপরে  আপনারা সেই ভিডিও লাগবে আপনাদের ওয়েবসাইট এর ভিতরে দিয়ে দেবেন   

তাহলে আপনাদের ওয়েবসাইটের স্পিড বাড়বে কারণ আপনারা যদি সরাসরি ভিডিওটি আপনাদের ওয়েবসাইটে দেন তাহলে আপনাদের  ওয়েবসাইটের স্পিড অনেক   slow হয়ে যাবে তাই অবশ্যই আপনারা চেষ্টা করবেন আপনারা যে ভিডিওটা  বানান  সে ভিডিওটা ইউটিউবে আপলোড করবেন তার  পরে  সেই ভিডিওর লিংকটি আপনাদের ওয়েবসাইটে দিয়ে দিবেন তাহলে হবে  

 

আর আপনারা যদি আপনাদের ওয়েবসাইটএর ভিতরে আপনাদের ইউটিউব চ্যানেলেরলিংক  দেন তাহলে দেখা যাবে যে আপনাদের ইউটিউব চ্যানেল সাবস্ক্রাইব  বেড়ে যাবে অনেক মানুষ আপনার ইউটিউব চ্যানেলেঢুকে আপনার অন্য ভিডিওগুলো যদি ভালো লাগে তাহলে সে দেখবে আর এইভাবে কিন্তু আপনার ইউটিউব থেকে  ভালো পরিমাণে অর্থ উপার্জন করতে পারবেন আশা করি বুঝতে পেরেছেন কেন আপনারা আপনাদের ভিডিও গুলো সবার প্রথমে ইউটিউবে আপলোড করবেন তারপরে সেই লিংকটি আপনাদের ওয়েবসাইটে দিবেন  

 

. ছবির ভিতরে ALT Tags ব্যবহার  করবেন  

আমরা যখন আমাদের ওয়েবসাইটে বিভিন্ন ফটো আপলোড করি তখন কিন্তু আমরা সেই বিষয়ে জানি যে আমরা কি বিষয় নিয়ে ফটো আপলোড করেছি কিন্তু গুগোল তো আর এই বিষয়টা বুঝে না অর্থাৎ গুগলের যে অ্যালগরিদম সিস্টেম রয়েছে সেটা কিন্তু বুঝতে পারে না তাই আপনাদেরকে ছবির ভিতরে আলট্রা tag  ব্যবহার করতে হবে, আর আপনার যদি অর্ডার ট্র্যাক ব্যবহার করেন তাহলে , কিন্তু গুগোল খুব সহজে বুঝিয়ে দিতে পারবে যে আপনাদের এই ছবিটি কিসের ছবি এবং আপনারা কেন আপনাদের ওয়েবসাইটে এই ছবিটি আপলোড করছেন এই বিষয়টা গুগোল খুব সহজে বুঝতে পারবে। 

 

আর আপনি যদি আলট্রাটেক ব্যবহার করেন তাহলে কিন্তু  তাহলে কিন্তু আপনাদের ইমেজগুলো যেই নামে সেভ করবেন সেই বিষয় নিয়ে যদি কেউ সার্চ করে তাহলে দেখা যাবে গুগলে আপনার ইমেজ সেই ইমেজগুলো আসবে এবং ইমেজ গুলোতে যদি কেউ  ক্লিক  করে। 

তাহলে কিন্তু সে সরাসরি আপনার ওয়েবসাইটে চলে আসবে আর এর মাধ্যমে কিন্তু আপনারা বেশ ভালো পরিমাণে এটা ভিজিটর গুগল থেকে ফ্রিতে আনতে পারবেন আর এটা হচ্ছে ইমেজ এসইও অর্থাৎ এই ভাবে আপনারা আপনাদের ওয়েবসাইটেযে ছবিগুলো আপলোড করবেন সে গুলোকে এসইও করতে পারবেন। 


. নিয়মিতভাবে আর্টিকেল পাবলিশ করতে হবে 

 

আপনাদের ওয়েবসাইটেনিয়মিতভাবে আর্টিকেলপাবলিশ করতে হবে , আপনি যদি আজকে আর্টিকেল প্রকাশ করেন এবং একমাসেও যদি আপনার কোনো খবর না থাকে তাহলে দেখা যাবে আপনাদের ওয়েবসাইটে ভিজিটর আসবে না প্রথমবারএকবার আসবে কিন্তু তার পরের বার যখন আসবে দেখবে যখন আপনার কাছে কি কোন নতুন আর্টিকেল পাবলিশ করেন নি তখন কিন্তু দেখা যাবে আপনার ওয়েবসাইটে সে পরে আর ভিজিট করবেন। 

 

তাই এক্ষেত্রেঅবশ্যই আপনাদেরকেনিয়মিতভাবে আর্টিকেলপ্রকাশ করতে হবে। আপনারা যদি প্রতিদিন না পারেন তাহলে অত্যন্ত পক্ষে দুইটা বা তিনটা আর্টিকেল প্রকাশ করার চেষ্টা করবেন। নির্দিষ্টকোন একটা  দিন সিলেক্ট করেছে দিনে আপনারা চাইলে সেই দিনে আর্টিকেলপাবলিশ করতে পারেন।  

 

আমাদের শেষ কথা  

তাহলে আজকে আমরা মাধ্যমে জানতে পারলাম যেকিভাবে  অনপেজ এসইও করতে হয় , এবং এর সাথে অন পেজ এসইও করে কিভাবে গুগোল রেঙ্ক করতে পারবেন এই বিষয়গুলো সম্পর্কে বিস্তারিতজানতে পারলাম  আজকের এই আর্টিকেলেরভিতরে।

আর আমাদের ওয়েবসাইটে এখন থেকে  এসইও  সম্পর্কেবিভিন্ন তথ্য শেয়ার করা হবেআপনারা যদি  এসইও সম্পর্কে জানার জন্য আগ্রহী হয়ে থাকেন এবং এসইও শিখতে চান তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটে প্রতিদিন ভিজিট করতে পারেন আমাদের ওয়েবসাইটে এখন থেকে প্রতিদিন সম্পর্কেবিভিন্ন টিপস এন্ড ট্রিকস শেয়ার করা হবে  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *